Mon. Oct 26th, 2020

সিএ’র দশকসেরা দলেও সাকিব

স্বীকৃতির আরেকটি পালক যুক্ত হলো বিশ্বখ্যাত টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বর্ণাট্যময় ক্রিকেট ক্যারিয়ারের অর্জনের তালিকায়। উইজডেনের পর বিশ্বের অন্যতম সফল ও প্রভাবশালী হিসেবে সুপরিচিত ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) দশক সেরা ওয়ানডে দলেও অন্তর্ভুক্তির
গৌরবের দেখা পেলেন বাংলাদেশের সুপারস্টার।
গতকাল অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা সিএ ঘোষিত ওয়ানডে ফরম্যাটের বিগত দশকের কিংবদন্তি পারফরমার সমন্বিত ড্রিম টিম-এ জায়গা করে নেয়ার রেসে বিশ্বকাপজয়ী ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যানকে পেছনে ফেলেছেন কারিশম্যাটিক টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব। ব্যাট-বলে তার নৈপুণ্যই মুখ্য ভূমিকা রেখেছে সিএ’র (২০১০-২০২০) দশক সেরা ৫০ ওভারের দলে অন্তর্ভুক্তির গৌরব অর্জনের পেছনে। সমকালীন সময়ের বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা ১১ জন নিয়ে গঠিত দলটির অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বিশ্বকাপ জয়ী ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। দেশটির তারকা ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলিও আছেন সিএ’র দশক সেরা ওয়ানডে একাদশে।
দলটির স্পেশ্যালিস্ট স্পিনারের ভূমিকা পালনের জন্য ‘ছোটো দলের বড় তারকা’ খ্যাত আফগানিস্তানের সেনসেশন রশিদ খানকে বেছে নেয়া হয়েছে।
ভারত-আফগানিস্তানের বাইরে এশিয়ার একমাত্র দেশের ক্রিকেটার হিসেবে সাকিব জায়গা পেয়েছেন সিএ’র দশক শ্রেষ্ঠ ওয়ানডে দলে। বিগত দশ বছর ব্যাট-বলে অসাধারণ কেটেছে বর্তমানে নিষেধাজ্ঞার শাস্তির অধীনে থাকা সাকিবের। ৫০ ওভারের ফরম্যাটের লড়াইয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের কৃতিত্ব তার দখলে। একই সময়ে তার ব্যাট হাতের দুর্দান্ত নৈপুণ্য নিশ্চিত করেছে সম-সাময়িককালের শ্রেষ্ঠ অলরাউন্ডারের খ্যাতিও। শেষ দশ বছরে ১৩১ ম্যাচে সাকিব ৩৮ দশমিক ৮৭ গড়ে ৪ হাজার ২৭৬ রান করেছেন। সেঞ্চুরি পাঁচটি। অর্ধশতক ৩৫ ম্যাচে। ব্যাট হাতে পারফরম্যান্সের অসাধারণ ধারাবাহিকতা প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি বল হাতে নিয়েছেন বিগত দশকের ওয়ানডে ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭৭ উইকেট।
সিএ’র দশক সেরা ওয়ানডে দল
রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, এবি ডি ভিলিয়ার্স, হাশিম আমলা, সাকিব-আল-হাসান, যশ বাটলার, লাসিথ মালিঙ্গা, রশিদ খান, ধোনি (অধি:), মিচেল স্টার্ক ও ট্রেন্ট বোল্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *