Tue. Jun 15th, 2021

শাল্লা প্রতিনিধি:
পেশাদার চোরাপল্লী নারকিলা গ্রামের একটি পাড়া। যেটা স্থানীয়ভাবে জাতগাঁও হিসেবে পরিচিত। ওই চোরাপল্লীর আব্দুর রহমানের ছেলে পাভেল আহমদ। পূর্ব-পুরুষদের অপকর্ম ঢাকতে পাভেল আহমদ কিছুটা লেখাপড়া করে অনলাইনের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে চলছে। এছাড়াও বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিদের অনলাইনে নিউজ প্রকাশ করার ভয়ভীতি দেখিয়ে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে পাভেল। গত কয়েকদিন আগে হবিবপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ সবুজ মিয়াকে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য প্রতারণার ফাঁদে ফেলা হয়। দুজনের গোপনীয় কথাবার্তার ম্যাসেঞ্জারের স্কীনশট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ফাঁস হয়ে যায় পাভেলের চাদাঁবাজির গোপন খবর।
এরপর গত ৩জুন আরেকটি প্রতারণার ফাঁদ পাঁতে পাভেল আহমদ। জানা যায়, পাভেল আহমদ অনলাইন দৈনিক জৈন্তা বার্তা পত্রিকায় শাল্লা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত। পত্রিকাটিকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে শাল্লার মানুষের মান-সম্মান ক্ষুন্ন করে চলেছে পাভেল। এরই প্রেক্ষিতে ঘুঙ্গিয়ারগাঁও বাজারের বৈধ লাইসেন্সধারী ঔষধ ব্যবসায়ী বিপুল রায় ও বিপ্লব রায়কে নিয়ে একটি মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া প্রতিবেদন প্রকাশ করে লাখ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করার চেষ্টা করছে। ব্যাক্তি আক্রোশে সংবাদ প্রকাশ করে সাংবাদিকতাকে কলঙ্কিত করছেন বলে জানান শাল্লা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি বকুল আহমেদ তালুকদার। তিনি বলেন, যে দুটি প্রতিষ্ঠান নিয়ে একটি অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করেছে তা উদ্দেশ্য প্রণোদিত। ব্যাক্তি স্বার্থের জন্যই মুলত তারা এধরণের সংবাদ প্রকাশ করে। সুবিধা না ফেলেই পাভেল অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করে সমাজে মানুষের মান-সম্মান নিয়ে খেলা করে। তাই সাংবাদিকতার নামে এই অপসাংবাদিকতা বন্ধ করার জন্য সংশ্লিষ্ট পত্রিকার কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন মি: তালুকদার।
তবে সাংবাদিক বিপ্লব রায় তার সম্মান ও ব্যবসার ক্ষতিপুরণের দায়ে শাল্লা থানায় একটি জিডি করেছেন। জিডি নং ১২৪। তারিখ ০৪/০৬/২১। জিডিতে উল্লেখ করা হয়, পাভেল বিপুল রায়ের কাছে কোনো সুবিধা না পেয়ে বৈধ লাইসেন্সপ্রাপ্ত দুটি ব্যবসা নিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে। এই সংবাদে যা লিখা হয়েছে তার একটুও সত্য নয়। সুবিধা না দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে এমন অপ্রপ্রচার চালাতেই মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেছে। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও সাংবাদিক বিপ্লব রায়কে নিয়ে নানা কুরুচিপুর্ণ লেখালেখি করছে। যা বিপ্লব রায়ের সম্মানহানি ঘটছে। তাই তিনি আইনের আশ্রয় নিয়ে আইনের মাধ্যমে পাভেল আহমদের শাস্তি দাবি করছেন মি: বিপ্লব রায়।
এ বিষয়ে শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নুর আলমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে একটি জিডি করা হয়েছে। জিডির সুত্র ধরে তদন্তক্রমে আইনীভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা জানান মি: আলম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *