Tue. Oct 26th, 2021

ডেলটা হবে করোনার প্রধান ধরন: ডব্লিউএইচও

অনলাইন ডেস্ক-

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) সতর্ক করে বলেছে যে আগামী মাস কয়েকের মধ্যে ‘ডেলটা’ হবে করোনার প্রাধান্যশীল ধরন। গতকাল বৃহস্পতিবার এনডিটিভি অনলাইনে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।
ডব্লিউএইচও বলছে, ‘ডেলটা’ করোনার একটি অতি সংক্রামক ধরন। বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ১০০টি দেশে করোনার ‘ডেলটা’ ধরনের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।
গত ২৯ জুন পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ডব্লিউএইচও বলেছে, বিশ্বের ৯৬টি দেশ করোনার ডেলটা ধরন শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে। তার মধ্যে কিছু দেশে করোনার ডেলটা ধরন থেকে সংক্রমণ বৃদ্ধি ও সংক্রমিত ব্যক্তিদের হাসপাতালে ভর্তির হার বাড়তে দেখা যাচ্ছে।
ডব্লিউএইচও সতর্ক করে বলেছে, ডেলটার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এই ধরনটি করোনার অন্য সব ধরনকে দ্রুত ছাপিয়ে যেতে পারে। আর এভাবেই আগামী মাস কয়েকের মধ্যে ডেলটা করোনার প্রধান ধরন হয়ে উঠতে পারে।
করোনা মহামারি মোকাবিলায় যেসব হাতিয়ার এখন পর্যন্ত বিশ্বে বিদ্যমান রয়েছে, সেগুলোই ডেলটার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কার্যকর বলে জানিয়েছে ডব্লিউএইচও। তবে যেহেতু বিশ্বে ডেলটা ধরনের সংক্রমণ বাড়ছে, তাই সুরক্ষামূলক ব্যবস্থাগুলো দীর্ঘ সময় ধরে অব্যাহত রাখার দরকার পড়তে পারে বলে মনে করছে ডব্লিউএইচও।
৩০ জুন দ্য নিউইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে জানায়, বিশ্বের বিভিন্ন অংশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আবার বাড়ছে। করোনার সংক্রমণ নতুন করে বৃদ্ধির জন্য অতি সংক্রামক ডেলটাসহ অন্যান্য ধরন ভূমিকা রাখছে। এই পরিস্থিতি সম্পর্কে প্রতিবেদনে বলা হয়, দুঃস্বপ্ন ফিরে আসছে।
ডব্লিউএইচওর প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস গত সপ্তাহে বলেছিলেন, এখন পর্যন্ত শনাক্ত করোনার ধরনগুলোর মধ্যে ডেলটা সবচেয়ে সংক্রামক। যারা টিকা নেয়নি—এমন জনগোষ্ঠীর মধ্যে ডেলটা ধরন দ্রুত ছড়াচ্ছে।
গেব্রেয়াসুস বলেছিলেন, ‘ডেলটা নিয়ে বিশ্বে বর্তমানে অনেক উদ্বেগ রয়েছে। এ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও উদ্বিগ্ন।’
করোনার ডেলটা ধরন প্রথম শনাক্ত হয় ভারতে। গত বছরের অক্টোবরে এই ধরনটি শনাক্ত হয়। করোনার এই ধরনটি অতি সংক্রামক। ডেলটা দ্রুত একজনের কাছ থেকে অন্যের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। মূলত এ ধরনের কারণেই ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মারাত্মক আকার ধারণ করে। সংক্রমণের ধাক্কায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে দেশটি।
করোনার ডেলটা ধরনকে শুরুতে ভারতীয় ধরনই বলা হতো। পরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) পক্ষ থেকে এই ধরনটির নতুন নাম দেওয়া হয় ‘ডেলটা ভেরিয়েন্ট’। ধরনটির বৈজ্ঞানিক নাম (বি.১. ৬১৭)। গত মে মাসে করোনার ডেলটা ধরনকে ‘উদ্বেগজনক ধরন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করে ডব্লিউএইচও।
৮ মে জার্মানির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটায় (জিআইএসএআইডি) বাংলাদেশে করোনার এই ধরন শনাক্তের খবর দেওয়া হয়। সম্প্রতি সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) জানায়, দেশে দুই মাসে করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের নমুনা পরীক্ষা করে ৮০ শতাংশে ডেলটা ধরন পাওয়া গেছে।

সূত্র- প্রথম আলো ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *